অনলাইনে টাকা আয় করার সুযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে । অনলাইন ইনকাম টিপস

রিমি আক্তার
প্রকাশকাল (১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৭)

f
g+
t

বর্তমান চাকরির বাজারের মন্দা ভাব এবং ব্যবসায়ে অধিক ঝুকির কারনে অধিকাংশ তরুণই ঝুঁকছে অনলাইন ভিত্তিক পেশার দিকে। বিগত বছর গুলোতে বাংলাদেশের কর্মসংস্থান খাতে অনলাইন আয় বিশেষ ভূমিকা পালন করেছে। বর্তমানে চাকরির বাজারে মন্দা ভাব এবং বিগত বছর গুলোতে পর্যাপ্ত পরিমানে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি না হওয়ায় বাংলাদেশ সরকার অনলাইন আয়ের সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

অনলাইনে টাকা আয় করার সুযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে । অনলাইন ইনকাম টিপস

ছবি রিমি আক্তার

কোন প্রকার অভিজ্ঞতা ছাড়া অনলাইন আয়ের জনপ্রিয় মাধ্যম

ব্লগে আর্টিকেল লিখে সারাজীবন টাকা আয় করুন

ইন্টারনেট থেকে টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে কিছু উপায় আছে যা জানা অত্যন্ত জরুরী। একটা সময় ছিল যখন অনলাইনে আয় বলতে সবাই শুধু মাত্র ফ্রীলান্সিংকেই বুঝত। এখনো ফ্রীলান্সিং করে টাকা আয় করছে কিন্তু সেই ক্ষেত্রতা খুবই ক্ষুদ্র হয়ে গিয়েছে। এখন মানুষ অন্য কিছু করার দিকে ঝুঁকছে।

লেখালেখি করে ইনলাইনে আয় করার জন্য এখন অনেক সাইট আছে যা থেকে খুব সহজেই ভাল একটা উপার্জন করতে পারা যায়। তাছাড়া ভিডিও শেয়ারিং করে আয় করার ক্ষেত্রে ইউ টিউবের নাম সবার আগে আসে। ইউ টিউব থেকে প্রতি মাসে ভাল একটা আয় করা যেত কিন্তু ইদানীং অনেকেরই ইউ টিউব চানেল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে যা হতাশার জন্ম দিচ্ছে। অনেকে প্রচুর টাকা বিনিয়গ করে একটা ভাল ইউ টিউব চ্যানেল তৈরি করেছে কিন্তু হঠাৎ করে দেখা গেল টাকা উত্তোলন করতে গেলে টাকা পাওয়া যাচ্ছে না, চ্যানেল সাস্পেন্স ইত্যাদি অনেক সমস্যা।

এছাড়া, অনেক পিটিসি সাইট আছে যা মানুষকে ঠকানোর ধান্দায় থাকে। এমন অনেক সাইট আছে যারা বেশি টাকার লোভ দেখিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করে। তাছাড়া এফিলিয়েট মার্কেটিং আছে যার সেই একই অবস্থা। মোটকথা থার্ড পার্টির সাইটে কাজ করা মানেই অনিশ্চয়তা থাকবেই।

এইসব ঝামেলার কারনে অভিজ্ঞরা এখন নিজস্ব ব্যবসা কংবা অন্য কোন ভাবে ইনকাম সোর্স বের করছে। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ই-কমার্স, নিজের সাইটে লেখালেখি কিংবা অন কোন আইডিয়া নিয়ে ব্যবসা শুরু করা। মানুষ অফলাইনের অনেক আইডিয়াকে অনালাইনে শুরু করছে যা থেকে খুব সহজেই লাভবান হচ্ছে।

অনলাইনে টাকা আয় করার সুযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে । অনলাইন ইনকাম টিপস

ছবি রিমি আক্তার

ইন্টারনেট ভিত্তিক পেশা নির্বাচনের করার কারন কি? ইন্টারনেটে কাজ করার কিছু সুবিধা আছে যা অন্য কোথাও পাওয়া সম্ভব নয়। ইন্টারনেটে মানুষের আগ্রহ বৃদ্ধি পাচ্ছে কারন বর্তমানে জনসংখ্যার বৃহৎ একটা অংশ ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত আছে যার ফলে খুব সহজেই অনলাইনে বিশাল একটা বাজার তৈরি হয়েছে। তাছাড়া ইন্টারনেটে কাজ করার ক্ষেত্রে খুব বেশি যোগ্যতা কিংবা খুব বেশি ঝামেলা পোহাতে হয়না।

তরুন প্রজন্মের কাছে এর গুরুত্ব বেশি হওয়ার কারন পড়াশোনার পাশাপাশি কিছু করার ক্ষেত্রে এর বিকল্প আর কিছু হতে পারেনা। তার উপর কর্মজীবনের শুরুতে চাকরির পেছনে ঘুরতে ঘুরতে হয়রানি হওয়ার দৃশ্য স্বভাবতই আগে থেকে কিছু করার আগ্রহ সৃষ্টি করে। তাছাড়া যারা ব্যবসা করতে চায় তাদের বৃহৎ একটা অংশই অধিক পুঁজি, পরিচালনার ঝামেলা, পরিচালনার খরচ এবং অধিক ঝুঁকির কারনে ব্যবসা করতে সাহস পায় না।

সেক্ষেত্রে ইন্টারনেট ভিত্তিক ব্যবসা করার ক্ষেত্রে একটা ভাল আইডিয়া এবং নাম মাত্র বিনিয়োগের মাধ্যমে একটা সম্মানজনক পেশা প্রতিষ্ঠিত করতে পারছে। অনলাইনে ব্যবসার সুযোগ বৃদ্ধির কারনে খুব সহজেই নতুন নতুন উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে যা কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রে বড় ধরনের অবদান রাখছে। অনলাইনে পেশা নির্বাচন করার সবচেয়ে বড় কারন এবং সুবিধা হচ্ছে বিশ্বায়নমুখী মানসিকতা।

বিশ্বায়নের প্রতি তরুণ প্রজন্মের অধিক আগ্রহ এবং খুব সহজে তা পূরণ করার ক্ষেত্রে ইন্টারনেটের বিকল্প আর কিছুই হতে পারেনা। ইন্টারনেটের কল্যাণে ঘরে বসে সারা দেশ তথা সারা পৃথিবীর সাথে ব্যবসা করা যাচ্ছে। তাছাড়া এখন বাংলাদেশে বসেও বিশ্বের যেকোনো দেশের কাজ করে উপার্জন করার সুবিধাতো আছেই। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ব্যবসা করার ক্ষেত্রে ব্যবসার সহায়ক জিনিস যেমন পণ্য ডেলিভারি, পণ্যের মূল্য পরিশোধ এবং ঝুকি কমানো এই সকল কারনে অনলাইনের দিকে মানুষ বেশি ঝুঁকছে।

অনলাইনে টাকা আয় করার সুযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে । অনলাইন ইনকাম টিপস

ছবি রিমি আক্তার

অনেকেই অনলাইনে একটা ওয়েবসাইট এবং একটা ফেসবুক পেইজ নিয়ে ফুলের দোকান, বাসা বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেয়ার ব্যবসা, ঔষধের দোকান, বিভিন্ন পরামরশমুলক ব্যবসা, বিভিন্ন দেশিয় পণ্য তথা জামদানি, কুটির শিল্প পণ্য ও কাপরের ব্যবসা এমনকি বাড়ি গাড়ি পর্যন্ত কেনাবেচা হচ্ছে। তাছাড়া প্রত্যেকেই নিজের চিন্তা এবং পরিকল্পনা নিয়ে নতুন নতুন ব্যবসা শুরু করছে।

অনলাইনে এইসকল ব্যবসা করার সুবিধা হল যেকোনো সময় অল্প পুঁজি নিয়ে শুরু করা যাচ্ছে, ব্যবসা করার ক্ষেত্রে পুঁজি এবং ঝুকি কম থাকে, ব্যবসা করার ক্ষেত্রে পারিপার্শ্বিক হুমকি থেকে রক্ষা পাওয়া যায়, অনলাইনে ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য বেশি লোক এবং খরচ হয়না। সর্বোপরি ইন্টারনেটে ব্যবসার প্রচার, প্রসার খুব সহজে ভোক্তাদের কাছে পৌঁছানোর সুযোগ অনেক বেশি এবং সারা দেশ এমনকি সারা পৃথিবীতে ব্যবসা করা যায়।

অনলাইনে ব্যবসা শুরু করতে আইটি সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা, একটা ভাল আইডিয়া, উন্নতমানের একটা ওয়েবসাইট এবং অল্প কিছু পুঁজি দরকার হয় যা খুবই সামান্য। আপনিও যেকোনো সময় শুরু করতে পারেন আপনার স্বপ্নের ব্যবসা। অনলাইনে ব্যবসা শুরু করার জন্য সবধরনের পরামর্শ এবং অল্প খরচে গুনগতমানের ওয়েবসাইট তৈরির জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন কিংবা ফেসবুকে মেসেজ করুন। আমাদের সাথে যোগাযোগ করার মাদ্ধমঃ
ফেসবুক- Facebook/IT Access Service
ইমাইল- itaccessservice@gmail.com

লেখকের সাথে যোগাযোগ করুন

রিমি আক্তার-এর আরও প্রবন্ধ পড়ুন

জেনে নিন রাজশাহী বিভাগের সব জেলার জনপ্রিয় দর্শনীয় স্থান সমূহ

খুলনা বিভাগের সকল জেলার জনপ্রিয় ও বিখ্যাত দর্শনীয় স্থান সমূহ

এবার খুব সহজেই ঘরে বসে অনলাইনে কেনাকাটা করুন

বিজ্ঞাপন

আরও প্রবন্ধ পড়ুন






© ২০১৬ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত LearnArticle.com